শুক্রবার, জানুয়ারি ২২, ২০২১
আজ শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (শীতকাল)
৯ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
Home Design Make it Modern বাবার প্রে'মিকাকে বিয়ে কর'লেন ছেলে,মৃত্যুর প্রহর গুনছে মা

বাবার প্রে’মিকাকে বিয়ে কর’লেন ছেলে,মৃত্যুর প্রহর গুনছে মা

এই অভি’যোগে দাম্পত্যক’লহের পর বিষপান ক’রেছেন হনুফা বেগম নামের এক নারী। চুয়া’ডাঙ্গা সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়’ছেন তিনি। চিকিৎসক জানি’য়েছেন, ঘাস নিধনের বিষ খেয়েছেন হনুফা, তার অবস্থা আশঙ্কা’জনক।

বিষপান করেন হনুফা। হ’নুফার স্বামী চুয়া’ডাঙ্গা সী’মান্ত হাই স্কুলের শিক্ষক মো’জাফফর আলী ওরফে জহু’রুলের (৫০) বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ করে’ছেন হনুফা বেগমের মা।

হানুফা বেগমের মা ব’লেন, আমার’ মেয়ের স্বামীর পরকী’য়ার কারণে অ’তিরিক্ত টেনশনে বিষপান করে আ’ত্মহত্যা করতে চেয়েছিলো।

এদিকে, ওই শিক্ষ’ক জ’হুরুল তার স্ত্রীকে ‘মানসিক ভারসাম্য’হীন বলে দাবি করছেন সাংবা’দিকদের কাছে।

জানা যায়, চুয়া’ডাঙ্গা সীমান্ত হাই স্কুলের প্রাক্তন এক ছাত্রীর সঙ্গে দীর্ঘ’দিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন শি’ক্ষক মোজাফফ’র আলী ওরফে জ’হুরুল ইসলাম। সেই সুবাদে ওই ছাত্রী জহুরুল ইসলামের স্বশুর’বাড়ি দৌলত’দিয়াড়ে প্রায় যাতায়াত করত। একপ’র্যায়ে জহুরুল ইসলামের ছেলে শুভর সঙ্গে তার প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে ওঠে। এ বিষ’য়টি তার মা হানুফা বেগম জা’নতে পারায় ছেলের সঙ্গে গোপ’নে ওই মেয়েটির বিয়ে দিয়ে দেন। এতেই স্বামী জহুরুল ইসলামের স’ঙ্গে তার মনো’মালিন্য শুরু হয়। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে প্রায়ই তাদের ‘মধ্যে ঝগড়া হতো বলে জানান স্থানীয়রা’। একপ’র্যায়ে স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে হানু’ফা বেগম বিষপান করে আ’ত্মহত্যার করার চেষ্টা করেন। 

হায়দারপুর গ্রামবাসী’র অভিযোগ, জহু’রুলের গ্রামের বাড়ি হায়দারপুরে কাজ করতেন হানুফা’। কাজ করার সুবাদে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে, এরপর বিয়েও করেন তা’রা। কিন্তু জহুরুলের পরিবার বিষয়’টিকে মেনে নেয়’নি। এ কারণে হানুফা তার বাবার বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের দৌলতদিয়াড়ে থাকতেন। দৌলতদিয়া’ড়ে জহুরুল’ মাঝে মাঝে যাতায়াত করতেন। বেশির’ভাগ সময় তিনি নিজ গ্রা’ম হায়দারপুরে অবস্থান কর’তেন। জহু’রুল তার স্ত্রীকে তালাকের ভয় দেখিয়ে তিনি অ’নৈতিক কাজ করতেন বলে অভি’যোগ রয়েছে।

জানা গে’ছে এর আগে ওই শিক্ষক ২”০০৭ সালে নি’জ গ্রাম ও একই বি’দ্যালয়ের আ’রেক ছাত্রীর সঙ্গে অনৈ’তিক সম্পর্ক গড়ে তোলায় এলাকায় তো’লপাড় সৃষ্টি হয়। টাকার বিনিময়ে বিষয়টি সে সময় মিটিয়ে নেন তিনি। 

এ বিষ’য়ে শিক্ষক জহু’রুলের সঙ্গে একাধি’কবার মোবাইল ফোনে যো’গাযোগের চেষ্টা’ করা হলে বন্ধ পাওয়া’ যায়।

চুয়াডা’ঙ্গা সদর হাসপাতা’লের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. সোহানা আহমেদ বলেন, হানুফা নামে ‘এক নারী সকালে হা’সপা’তালের জরুরি বিভাগে আ’সেন ‘বিষপান করা অবস্থায়। প্রথমে তার শ”রীরের পাকস্থলী থেকে সেটি ও’য়াশ করা হয়েছে। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় হাসপা’তালে ভর্তি রাখা হয়ে’ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

বিয়ে’র ২ মাস পর সন্তানের জন্ম, পর’দিনই তালাক

চুয়াডাঙ্গা'য় বিয়ের দুই মাসের মাথায় এক নববধূ সন্তানের জন্ম দেওয়ায় এলাকায় চা'ঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার স্বামীর বাড়িতে ওই নববধূ শনিবার রাতে ছেলেসন্তান...

বাবার প্রে’মিকাকে বিয়ে কর’লেন ছেলে,মৃত্যুর প্রহর গুনছে মা

এই অভি'যোগে দাম্পত্যক'লহের পর বিষপান ক'রেছেন হনুফা বেগম নামের এক নারী। চুয়া'ডাঙ্গা সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়'ছেন তিনি। চিকিৎসক জানি'য়েছেন, ঘাস নিধনের...

ঊর্বশীর ১৫ মিনিট সময়ের মূল্য ৪ কোটি কেন.

বলি'উডে খু'ব অল্প সময়ে খ্যা'তি অর্জন করেছেন ঊ'র্বশী রাউতেলা। তবে তা অর্জ'ন করা এতো সহজ ছিল না।কঠোর পরিশ্রম আর দৃঢ়'চেতা মনো'ভাবের কারণেই...

১ টুকরো মুখে নিয়ে ১ ঘন্টা সহবাস ক’রুন

বেশির ভাগ মানুষ আছেন' যারা গো’পন সমস্যা নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা ক’রতে চান না। আর এমন'কী’, এ সং’ক্রান্ত সমস্যা দেখা দিলে ডাক্তারের কাছে...

Recent Comments